জাতীয়

নির্বাচন কমিশনকে ব্যর্থ বললেন ফখরুল

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, এই সরকারের নির্বাচন কমিশন চরমভাবে ব্যর্থ। কমিশনের ব্যর্থতার জন্য তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা উচিত এবং  বিচার হওয়া উচিত। কারণ তারা নির্বাচন ব্যবস্থাকে ধ্বংস করে দিয়েছে।

কমিশনের বিরুদ্ধে মামলার পরিকল্পনা রয়েছে কি না- জানতে চাইলে ফখরুল বলেন, আমরা (বিএনপি) তাদের বিরুদ্ধে মামলা করব কি না- এটা পরে সিদ্ধান্ত নেব। কারণ এই দেশে মামলা করে কোনো লাভ হয় না। কারণ বিচার বিভাগও এখন আর স্বাধীনভাবে কাজ করতে পারে না।

শুক্রবার দুপুরে ঠাকুরগাঁও শহরের কালীবাড়ি এলাকায় নিজ বাসভবনে বিএনপির মহাসচিব সাংবাদিকদের সঙ্গে এক মতবিনিময়কালে এসব কথা বলেন।

ফখরুল বলেন, সার্চ কমিটিকে আমরা মানি না। সার্চ কমিটিতে আমরা আমাদের কাউকে দেব না। এই সার্চ কমিটির কাছে নিরপেক্ষতা আশা করার কোনো মানে নেই।

‘ইসি গঠনে সার্চ কমিটি গঠনের ব্যাপারে আমাদের কোনো আগ্রহ নেই। কারণ, এসবের কোনো মূল্য নেই। এসব অর্থহীন। যাকে সার্চ কমিটির প্রধান (বিচারপতি ওবায়দুল হাসান) করা হয়েছে, তাঁর বাবা ছিলেন আওয়ামী লীগ মনোনীত গণপরিষদ সদস্য। তার ছোট ভাই ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব। কমিটির আরেক সদস্য ২০১৮ সালে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন চেয়েছিলেন। তাঁদের কাছে তো নিরপেক্ষতা আশা করার কোনো কারণ নেই।’

আগামী জাতীয় নির্বাচনে অংশগ্রহণ নিয়ে বিএনপি কী ভাবছে- জানতে চাইলে এই সরকারের অধীনে আগামীতে কোনো নির্বাচনে বিএনপি অংশগ্রহণ করবে না বলে সাফ জানিয়ে দেন মহাসচিব।  তিনি বলেন, ‘বর্তমান সরকার থাকলে নির্বাচনে অংশ নেওয়ার প্রশ্নই উঠতে পারে না। ২০১৪ ও ২০১৮ সালের জাতীয় নির্বাচন ও স্থানীয় সরকার নির্বাচন হয়ে গেল। কোনোটাই নির্বাচন হয়নি। আওয়ামী লীগ যতদিন ক্ষমতায় থাকবে, ততদিন তারা নির্বাচন কমিশনকে দখলে রাখবে। তারা তাদের মতো করে নির্বাচন অনুষ্ঠানের চেষ্টা করবে।’

ফখরুল আরও বলেন, বিএনপি ও তার সহযোগী সংগঠনকে নতুনভাবে সাজানো হচ্ছে। জাতীয় ঐক্য গঠনে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। অন্য রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে অনানুষ্ঠানিকভাবে আমরা আলোচনা করছি।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- জেলা বিএনপির সভাপতি তৈমুর রহমান, সহ-সভাপতি আল মামুন আলম, অর্থ সম্পাদক শরিফুল ইসলাম শরিফ, রুহিয়া থানা বিএনপির আহ্বায়ক আনসারুল হকসহ অঙ্গ সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

Back to top button
%d bloggers like this: