সারাদেশ

সরকার ক্ষমতায় এসে দুর্নীতি আর অত্যাচার করেছে: গিয়াসউদ্দিন

নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির সভাপতি মুহাম্মদ গিয়াসউদ্দিন বলেছেন, আজ সমগ্র জাতি লজ্জিত। যে নেত্রীর নেতৃত্বে বাংলাদেশ সৃষ্টি হয়েছে, গণতান্ত্রিক আন্দোলন, দেশের উন্নয়ন ও অগ্রগতিতে যার ভূমিকা রয়েছে অপরিসীম, তিন তিন বারের প্রধান মন্ত্রী বিএনপির চেয়ারম্যান পার্সন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য আন্দোলন করতে হয়। আমরা কেন বা আন্দোলন করবো নেত্রীর জন্য, যার মুক্তিযুদ্ধে অবদান অবিস্মরণীয় হয়ে রয়েছে। যে নেত্রীর স্বামী দেশের স্বাধীনতার ঘোষণা দিয়েছেন। নিজে যুদ্ধ করে দেশ স্বাধীন করেছেন। দেশের শাসনভার হাতে নিয়ে সারা বিশ্বের কাছে বাংলাদেশকে উন্নত রাষ্ট্র হিসেবে পরিচিত করেছেন। তাকে আজকে অন্যায় ভাবে শাস্তি দিয়ে কারাগারে রাখা হয়েছে। অসুস্থ্য অবস্থায় তাকে মুক্তি দেওয়া হয় না, এটা জাতির জন্য দুর্ভাগ্য।

সোমবার (১ জুলাই) বিকালে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর বিএনপির কর্তৃক আয়োজিত সমাবেশে প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখতে গিয়ে তিনি এসব কথা বলেন। 

তিনি আরও বলেন, আমাদের নেত্রীর গৌরব কত উজ্জ্বল, সেটা আপনাদের সামনে বলতে চাই। এ সরকার ক্ষমতায় এসে দুর্নীতি,অত্যাচার সব কিছু করেছে। এসব করতে গিয়ে ভয় পেয়েছে বেগম খালেদা জিয়াকে। সে যদি মুক্ত থাকতেন তাহলে চুরি বাটপারী, রাষ্ট্রীয় অবক্ষয়, রাষ্ট্রকে ধ্বংসের কাজে তারা লিপ্ত হতে পারতো না। আমাদের প্রিয় নেত্রী সেই সংগ্রামে ভূমিকা রেখেছে। নেত্রী মুক্ত থাকলে তারা স্বৈরাচারী শাসন কায়েম করতে পারতো না। এটা বুঝেই তারা মিথ্যা মামলা দিয়ে অন্যায়ভাবে সাজা দিয়ে আমাদের নেত্রীকে আটক রেখেছে। আমাদের প্রিয় নেতা তারেক রহমানকে মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়ে দেশ থেকে দূরে রেখেছে। তারা ভীত হয়ে দুইজনকে আন্দেলন সংগ্রামের বাইরে রেখে নিজের ভাগ্য উন্নয়নে ব্যস্ত রয়েছে। হাজার হাজার কোটি টাকা লুট করে বিদেশে পাচার করেছে। দেশ পরিচালনার সাথে যারা রাজনীতি করে।

নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির আহ্বায়ক এড. সাখাওয়াত হোসেন খানের সভাপতিত্বে ও মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব এড. আবু আল ইউসুফ খান টিপু’র সঞ্চালনায় এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির জাতীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য বাবু গয়েশ্বর চন্দ্র রায়।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় জাতীয় নির্বাহী কমিটির ঢাকা বিভাগ সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক বেনজীর আহমেদ টিটো, বিএনপির কেন্দ্রীয় জাতীয় নির্বাহী কমিটির সহ- সাংগঠনিক সম্পাদক নজরুল ইসলাম আজাদ, বক্তা হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিএনপির সহ-অর্থনৈতিক বিষয়ক সম্পাদক মাহমুদুর রহমান সুমন, সদস্য কাজী মনিরুজ্জামান মনির, কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির সদস্য আজহারুল ইসলাম মান্নান, মোস্তাফিজুর রহমান ভূঁইয়া দিপু।

এছাড়াও আরও উপস্থিত ছিলেন জেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক গোলাম ফারুক খোকন, সাবেক যুগ্ম আহ্বায়ক মাশুকুল ইসলাম রাজিব, আড়াইহাজার উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি ইউসুফ আলী ভূঁইয়া, সাধারণ সম্পাদক জুয়েল আহম্মেদ, সিদ্ধিরগঞ্জ থানা বিএনপি’র সভাপতি মাজেদুল ইসলাম, সাধারণ সম্পাদক কাউন্সিলর ইকবাল হোসেন, ফতুল্লা থানা বিএনপির সভাপতি শহিদুল ইসলাম টিটু, সাধারণ সম্পাদক এড. আঃ বারী ভূঁইয়া,  রূপগঞ্জ উপজেলা বিএনপি’র এড. মাহফুজুর রহমান হুমায়ূন, সোনারগাঁ উপজেলা বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ হোসেন, জেলা যুবদলের আহ্বায়ক সাদেকুর রহমান সাদেক, সদস্য সচিব মশিউর রহমান রনি, মহানগর যুবদলের আহ্বায়ক মনিরুল ইসলাম সজল, সদস্য ও সাহেদ আহমেদ, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের সাবেক সভাপতি আনোয়ার সাদাত সায়েম, জেলা স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক মাহাবুব রহমান, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের আহ্বায়ক শাখাওয়াত ইসলাম রানা, জেলা শ্রমিকদলের সভাপতি মন্টু মেম্বার, মহানগর শ্রমিকদলের আহ্বায়ক এস এম আসলাম, জেলা মহিলা দলের সভানেত্রী রহিমা শরীফ মায়া, মহানগর দলের সভাপতি দিলারা মাসুদ ময়না, জেলা ছাত্রদলের সভাপতি নাহিদ হাসান ভূঁইয়া, মহানগর ছাত্রদলের সভাপতি রাকিবুর রহমান সাগরসহ জেলা ও মহানগর বিএনপি ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ।

Leave a Reply

Back to top button